বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ২০, ২০১৮




ফাইনালে রিয়াল- বেলের হ্যাটট্রিক

ক্রীড়া ডেস্কঃ  ইনজুরির কারণে খেলা নিয়েই শঙ্কা ছিল। তবে একে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে মাঠে নেমেছিলেন। ময়দানে এর টেরও পেতে দিলেন না গ্যারেথ বেল। ম্যাচের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত আলো ছড়ালেন। করলেন দুর্দান্ত হ্যাটট্রিক। তাতে আরামসে ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠে গেল রিয়াল মাদ্রিদ। কাশিমা অ্যান্টলার্সকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে লস ব্লাঙ্কোরা।

বুধবার রাতে দ্বিতীয় সেমিফাইনালে আবুধাবির জায়েদ স্পোর্টস সিটি স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয় রিয়াল-কাশিমা। শুরুতেই জাপানের দলটির ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন স্প্যানিশ জায়ান্টরা। মুহুর্মুহু আক্রমণে প্রতিপক্ষকে ব্যতিব্যস্ত রাখেন তারা। তবে গোলমুখ খুলছিল না।

অবশেষে ৪৪ মিনিটে অপেক্ষার পালা শেষ হয়। মার্সেলোর বাড়ানো বল ধরে কোনাকুনি শট নেন বেল। দূরের পোস্টে লেগে তা জালে জড়ায়। এতে লিড পায় রিয়াল।

দ্বিতীয়ার্ধেও আক্রমণের গতি সচল রাখে দলটি। তাতে নেতৃত্ব দেন বেল। ফলে ব্যবধান বাড়তেও সময় লাগেনি। ৫৩ মিনিটে প্রতিপক্ষের ভুলে ডি-বক্সে ফাঁকায় বল পেয়ে ডান পায়ের কোনাকুনি নিশানাভেদ করেন ওয়েলস ফরোয়ার্ড।

২ মিনিট পর ফের ডি-বক্সে বল ঠেলেন মার্সেলো। তা ফাঁকায় পেয়ে যান বেল। বজ্রগতির শটে ঠিকানায় পাঠান তিনি। এ নিয়ে মৌসুমে প্রথম হ্যাটট্রিক করলেন ২৯ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড।

খানিক পর বেলকে তুলে নিয়ে মার্কো অ্যাসেনসিওকে মাঠে নামান কোচ সান্তিয়াগো সোলারি। তাতে খেলার গতিও হ্রাস পায়। গোলও হজম করে বসে রিয়াল। ৭৮ মিনিটে দুরূহ কোণ থেকে মাটি ঘেঁষা শটে থিবো কোর্তোয়াকে পরাস্ত করেন শমা দই। কাশিমার প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছিল এ পর্যন্তই। পরে আর গোল আদায় করতে পারেনি সোলারির শিষ্যরাও। শেষ পর্যন্ত ৩-১ ব্যবধানে খেলার নিষ্পত্তি ঘটে।

প্রথম সেমিফাইনালে রিভার প্লেটকে টাইব্রেকারে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে আল-আইন। আসছে শনিবার সংযুক্ত আরব আমিরাতের দলটির বিপক্ষে ফাইনালি লড়াইয়ে মাঠে নামবে রিয়াল। ২০১৬ সালে এ দলকে হারিয়েই ক্লাব বিশ্বকাপের দ্বিতীয় শিরোপা জেতে গ্যালাকটিকোরা। এবার রেকর্ড টানা তৃতীয় ও মোট চতুর্থবার বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হওয়ার টার্গেটে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মাঠে নামবে তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category