সোমবার, জানুয়ারি ১৪, ২০১৯




এসেই তাণ্ডব থিসারার

ক্রীড়া প্রতিবেদকঃ এবারের বিপিএলে প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেই নজর কাড়লেন থিসারা পেরেরা। গতকাল ২০ বলে অর্ধশতক পূর্ণ করেন এ লঙ্কান ব্যাটসম্যান। শেষ পর্যন্ত হার না মানা ইনিংসে ২৬ বলে করেন ৭৪ রান। আর ইনিংস শেষে বড় পুঁজি পায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। মিরপুরে চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে কুমিল্লার ইনিংস থামে ১৮৪/৫-এ। আট নম্বরে ব্যাট হাতে ঝড়ো ইনিংসে থিসারা পেরেরা হাঁকান তিনটি বাউন্ডারি ও ৮টি ছক্কা। ষষ্ঠ উইকেটে মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনের সঙ্গে ৪০ বলে অবিচ্ছিন্ন ৯৮ রানের জুটি গড়েন থিসারা। ১৯ বলের ইনিংসে দুই বাউন্ডারি ও এক ছক্কার সাহায্যে ২৬ রানে অপরাজিত থাকেন সাইফুদ্দিন।

কুমিল্লার ইনিংসে শেষ ২২ বলে স্কোরবোর্ডে যোগ হয় ৬৮ রান। গতকাল চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে ১৩.২তম ওভার শেষে ৮৬/৫ সংগ্রহ নিয়ে বিপর্যয়ে পড়ে কুমিল্লা। ব্যক্তিগত ২ রানে ‘হিট দ্য উইকেট’ হয়ে সাজঘরে ফেরেন কুমিল্লার পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান শহীদ আফ্রিদি। এ সময় আদতে শীর্ষ ছয় উইকেটই খুইয়ে বসেছিল কুমিল্লা। ১১.৩তম ওভারে ব্যক্তিগত ৩৮ রানে কুমিল্লার আঘাতপ্রাপ্ত ব্যাটসম্যান এভিন লুইসকে স্ট্রেচারে করে মাঠের বাইরে নেয়া হয়। ঘটনাবহুল ১২তম ওভারের প্রথম বলেই ইমরুল কায়েসকে সাজঘরে ফেরান চিটাগং পেসার খালেদ আহমেদ। দ্বিতীয় বলে ২ রান নেন লিয়াম ডসন। কিন্তু দ্বিতীয় রান পূর্ণ করা শেষে পায়ের ইনজুরি নিয়ে মাঠ ছাড়েন এভিন লুইস। তৃতীয় ও চতুর্থ বলে কোনো রান নিতে ব্যর্থ হন ডসন। আর পঞ্চম বলে ডসন হন পরিষ্কার বোল্ড। যদিও ওভারের শেষ বলে বাউন্ডারি হাঁকান সাইফুদ্দিন।

 

স্টিভেন স্মিথকে হারিয়ে বিপাকে পড়া কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সে যোগ দিয়েছেন ইনফর্ম লঙ্কান ক্রিকেটার থিসারা পেরেরা। বিপিএলে খেলতে গিয়েই কনুইয়ে আঘাত পান স্মিথ। তড়িঘড়ি দেশে ফিরে যান এই অজি ক্রিকেটার। সেখানে আঘাত পরীক্ষার পর জানা যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে স্মিথের কনুইয়ের লিগামেন্ট। চোটের গতিপ্রকৃতি দেখে ডাক্তাররা তাকে দ্রুতই অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দিয়েছেন। স্মিথের অনুপস্থিতিতে বিপিএলের ষষ্ঠ আসরে অংশ নিতে গতকালই ঢাকায় এসেছেন শ্রীলঙ্কান পেস অলরাউন্ডার থিসারা। গতবার চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্সের হয়ে খেলেছিলেন পেরেরা। এবার তাকে ড্রাফট থেকে দলভুক্ত করেছে কুমিল্লা। জাতীয় দলের হয়ে আন্তর্জাতিক সিরিজে ব্যস্ত থাকায় বিপিএলের শুরু থেকে খেলতে পারেননি পেরেরা।
গতবার রংপুরকে শিরোপা জেতাতে বড় ভূমিকা রেখেছিলেন লঙ্কান অলরাউন্ডার। ডেথ ওভারে দারুণ বোলিংয়ে একাধিক ম্যাচ জিতিয়েছেন ডানহাতি পেসার। ৮ ম্যাচে ২৪.৬৬ গড়ে ৮.৫৩ ইকোনমি রেটে নিয়েছিলেন ৯ উইকেট। ব্যাটিংয়ে শেষ দিকে নেমে গুরুত্বপূর্ণ ৯৫ রান করেন ৮ ইনিংসে। রংপুর পেরেরাকে ছেড়ে দিলেও কুমিল্লা তাকে দলভুক্ত করার সুযোগটি হাতছাড়া করেনি। ঢাকায় এসেই কুমিল্লার হয়ে খেলতে নামেন চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে।
সবশেষ নিউজিল্যান্ড সফরে ছিলেন এ অলরাউন্ডার। সীমিত পরিসরে দল ভালো না করলেও ব্যাট-বল হাতে দারুণ উজ্জ্বল ছিলেন পেরেরা। তিন ওয়ানডেতে ব্যাট হাতে করেন ২২৪ রান। আর বোলিংয়ে নিয়েছেন ২ উইকেট। এ ছাড়া একমাত্র টি-টোয়েন্টিতে ১ উইকেট ও ৪৩ রান করেন ২৯ বছর বয়সী পেরেরা। ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ৭৪ বলে ১৪০ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলেন তিনি। ৮ চার ও ১৩ ছক্কায় হাঁকান ইনিংসটিতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category