বুধবার, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২০




৩০ বছর পর ভারতকে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দিলো নিউজিল্যান্ড

মো. নাছির উদ্দীন : নিজেদের মাটিতে বড় লজ্জায় পড়তে হয়েছিল নিউজিল্যান্ডকে। ভারতের কাছে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে হতে হয়েছে হোয়াইটওয়াশ (৫-০)। ফরম্যাট বদলাতেই দুর্দান্ত দাপটে ঘুরে দাঁড়ায় দলটি। হোয়াইটওয়াশের বদলার জবাব হোয়াইওয়াশেই দিয়েছে স্বাগতিকরা। ৩০ বছর পর সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ভারতকে হোয়াইটওয়াশের স্বাদ দিল কিইউরা।

তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে প্রথম দুই ম্যাচ জিতে আগেই সিরিজ জয় নিশ্চিত হয়েছিল নিউজিল্যান্ডের। গতকাল তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে মাউন্ট মঙ্গানুইতে হোয়াইটওয়াশ করার সুবর্ণ সুযোগ দারুণভাবে কাজে লাগিয়েছে কেন উইলিয়ামসনের দল। ২৯৭ রানের লক্ষ্য ১৭ বল ও ৫ উইকেট হাতে রেখেই টপকে যায় স্বাগতিকরা।

টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে আগের দুই ম্যাচ হেরে ঘুরে দাঁড়াতে গিয়ে শুরুতেই হোঁচট খায় ভারত। চোটের কারণে আগের ম্যাচগুলোতে খেলতে না পারা স্বাগতিকদের নিয়মিত অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন এ ম্যাচ দিয়েই মাঠে ফিরেন।

মায়াঙ্ক আগারওয়ালকে (১) হারিয়ে শুরুতেই হোঁচট খায় ভারত। ক্যারিয়ারের তৃতীয় ওয়ানডে খেলতে নামা এ ওপেনার বোল্ড হন পেসার কাইল জেমিসনের বলে।
এরপর দলীয় ৩২ রানের মাথায় ব্যক্তিগত (৯) রানে কোহলিকে আউট করে ভারতকে বিপদে ফেলে দেন হ্যামিশ বেনেট। এই পেসারকে খেলতে গিয়ে জেমিসনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান পুরো সিরিজে রানের জন্য সংগ্রাম করা ভারত অধিনায়ক।

বিপর্যয়ে দলকে টেনে তোলার চেষ্টায় ছিলেন ওপেনার পৃথ্বী শ ও শ্রেয়াস আইয়ার। দলীয় ৬২ এবং ব্যক্তিগত ৪০ রানের মাথায় পৃথ্বী শ রান আউট হয়ে ফিরে গেলে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে সফরকারীরা।

এরপর চতুর্থ উইকেট জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় ভারত। শ্রেয়াস আইয়ারকে নিয়ে শতরানের জুটি গড়েন লোকেশ রাহুল। ৬৩ বলে ৬২ রান করে শ্রেয়াস আইয়ার ফিরে গেলে পঞ্চম উইকেটে আরেকটি শত রানের জুটি ভারতকে এনে দেয় বড় সংগ্রহ। লোকেশ রাহুল ও মনিষ পান্ডে এই জুটিতে সংগ্রহ করেন ১০৭ রান।

লোকেশ রাহুল নিজের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে তৃতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন। আউট হওয়ার আগে ১১৩ বলে ১১২ রান করেন এ উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান। যাতে ৯টি বাউন্ডারির সাথে ছিলো ২টি ওভার বাউন্ডারি।

অপরদিকে, মনিশ পান্ডে ৪২ রান করে আউট হতেই স্লো হতে থাকে ভারতের রানের গতি। শেষতক নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২৯৬ রানের পুঁজি পায় সফরকারী ভারত। স্বাগতিকদের হয়ে ৬৪ রানে ৪ উইকেট পান হ্যামিশ বেনেট।

২৯৭ রানের জয়ের লক্ষে ব্যাট করতে নেমে ওপেনার মার্টিন গাপটিল ও হেনরি নিকোলাস নিউজিল্যান্ডকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন। উদ্বোধনী জুটিতে এ দু’জন সংগ্রহ করেন ১০৬ রান। ৪৬ বলে ৬৬ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে আউট হন মার্টিন গাপটিল। তার আউটেই ভাঙে শতরান পেরোনো জুটি।

এরপর কেন উইলিয়ামসন (২২) ফর্মে থাকা রস টেলর (১২) দ্রুত আউট হলে খানিকটা চাপে পড়ে যায় নিউজিল্যান্ড। অন্যপ্রান্তে হেনরি নিকোলাস ঠিকই এগিয়ে নেন দলকে। ১০৩ বলে ৮০ রানের ম্যাচসেরা ইনিংস খেলে আউট হন তিনি।

নিকোলাস আউট হওয়ার পর টম ল্যাথাম ও কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের অবিচ্ছিন্ন ৮০ রানের জুটি ৪৭.১ ওভারে নিউজিল্যান্ডকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেয়। মাত্র ২৮ বলে ৫৮ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম। টম ল্যাথাম অপরাজিত থাকেন ৩২ রান করে। তিন ম্যাচে একটি করে সেঞ্চুরি ও হাফসেঞ্চুরির সাহায্যে ১৯৪ রান করা নিউজিল্যান্ডের রস টেলর ম্যাচ সেরার পুরস্কার লাভ করেন।

এই পরাজয়ের সঙ্গে গত ৩০ বছরে না পাওয়া একটি লজ্জারই মুখোমুখি হয়েছে বিরাট কোহলিরা। তিন দশকেরও বেশি সময় পর এই প্রথম তিন বা তার বেশি ম্যাচের দ্বি-পাক্ষিক সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হলো ভারত।

ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে এই নিয়ে তিনবার তিন বা তার চেয়ে বেশি ম্যাচের দ্বি-পাক্ষিক সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হল ভারত। আগের দু’বারই ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে পর্যুদস্ত হতে হয়েছিল ভারতীয়দের। শেষবার ১৯৮৯ সালে ক্যারিবিয়ানদের কাছে ক্লিন স্যুইপ হয়েছিল টিম ইন্ডিয়া। এবার ৩১ বছর পর আবার লজ্জার সেই স্মৃতি ফিরিয়ে আনলো বিরাট কোহলিরা।

১৯৮৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ৫-০ ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিল ভারত। তার আগে ১৯৮৩-৮৪ মৌসুমে ঘরের মাঠে ক্যারিবীয়দের কাছে ৫-০ ব্যবধানে সিরিজ হেরেছিল ভারত। এবার নিউজিল্যান্ডের কাছে হোয়াইটওয়াশ হলো ৩-০ ব্যবধানে। যদিও ১ বা ২ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে একাধিকবার ভারতের হোয়াইটওয়াশ হওয়ার ইতিহাস রয়েছে।

১৯৯৭ সালে শ্রীলঙ্কা সফরে ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে হেরেছিল ভারত। তবে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচটি প্রথমে পরিত্যক্ত হয়। পরে রিজার্ভ ডেতে ম্যাচটি পূনরায় খেলা হলে ভারত পরাজিত হয়। এছাড়া বেশ কয়েকটি সিরিজের একটি ম্যাচ বাজে আবহাওয়ার কারণে ভেস্তে যাওয়ায় হোয়াইটওয়াশের লজ্জা থেকে রেহাই পেয়েছিল ভারত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category