বুধবার, নভেম্বর ৬, ২০১৯




হায়রে কচুয়ার যুব-উন্নয়ন অধিদপ্তর

স্টাফ রিপোর্টারঃ কচুয়া উপজেলা যুব-উন্নয়ন অধিদপ্তরের আওতায়ধিন ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচী (৫ম পর্ব) এর যুবক এবং যুব মহিলাসহ ৫”শ ৪৩ জন কর্মীদের ৯ মাসের বেতন না পেয়ে তাদের দুঃখ কষ্ট ভোগান্তির কোনো অন্তঃনেই । বহু ভোগান্তি দুঃখ কষ্টের পর জাতীয় যুব দিবসের পূর্বে তারা বেতন উঠানোর জন্য ওই অধিদপ্তর ১০টাকা মূল্যের রেভিনিউ ষ্টাম্পে সাক্ষর নিয়ে ৫০টাকা ও ১নভেম্বর ২০১৯ জাতীয় যুব দিবসের কর্মসূচিতে বাধ্যতামূলক অংশগ্রহণ এবং তাদের খাওয়া খরছের কথা বলে ১”শ টাকাসহ প্রতিজন থেকে দেড়”শ টাকা করে নেয় । অথচ ১নভেম্বর জাতীয় যুব দিবস কর্মসূচি অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি কচুয়া উপজেলা পরিষদের সুনামধন্য চেয়ারম্যান মোঃ শাহজাহান শিশির এ প্রতিনিধিকে জানান, অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কচুয়ার মাটি ও মানুষের নেতা ড.মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপি”র পক্ষ থেকে তিনি অনুষ্ঠানে ন্যাশনাল সার্ভিসের উপস্থিতির হার প্রায় ৩”শ কর্মীদের প্যাকেট নাস্তার জন্য অধিদপ্তরকে ২০ হাজার টাকা দিয়েছি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ন্যাশনাল সার্ভিসের উল্লেখ জনক কর্মী বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আমাদেরকে খাওয়ানোর কথা বলে যে, ১”শ টাকা করে নিয়েছে তার মধ্যে দুপুরে ভাত খাওয়ার সময় হয়তো সর্বোচ্চ ২০/২৫ টাকা মূল্যের প্যাকেট নাস্তা দিয়েছে।

এ ব্যাপরে কচুয়া যুব-উন্নয়ন অধিদপ্তরের কর্মকর্তা মুহাম্মদ মাহবুব উল আলম বলেন, দিবসটি পালনের জন্য সরকার থেকে মাত্র ১৫”শ টাকা পেয়েছি, বিশাল অনুষ্ঠান করেছি, অনেক খরছ হয়েছে। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাহেব বলেছে কিছু সহযোগীতা করবে এখনও দেয়নি । এদিকে ন্যাশনাল সার্ভিসের কর্মীদের থেকে উল্লেখিত টাকা আদায়ের বিষয়টি তিনি সম্পূর্ন অস্বীকার করেছে। এ নিয়ে কচুয়ার সর্বত্রে আলোচনার ঝড় বইছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category