বুধবার, নভেম্বর ১১, ২০২০




সর্বোচ্চ স্কোর নিয়ে ফিটনেস টেস্টে উত্তীর্ণ সাকিব আল হাসান

 ক্রিড়া প্রতিবেদকঃ সর্বোচ্চ স্কোর নিয়ে ফিটনেস টেস্টে উত্তীর্ণ হয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। বুধবার সকালে এ তথ্য জানান বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ফিটনেস ট্রেইনার। সর্বোচ্চ ১৩ দশমিক ৭ স্কোর নিয়ে ফিটনেস টেস্টে উত্তীর্ণ হয়েছেন সাকিব, যা এখন পর্যন্ত দলের সবার থেকে বেশি। এর আগে, ১৩ দশমিক ৬ স্কোর গড়েছিলেন পেসার মেহেদী হাসান।

গত কয়েকদিন ধরেই বিপ টেস্ট দিচ্ছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। নাসির হোসেন, সোহাগ গাজীদের মতো অনেকেই পাস করতে পারেনি। তবে সাকিবের ফিটনেস খুব ভালো অবস্থায় আছে বলে জানিয়েছেন ফিটনেস ট্রেইনার। আর এ কথা না বলার তো কোনো কারণ নেই। সর্বোচ্চ স্কোর নিয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তিনি। এর আগে, আবদুর রাজ্জাক, মোহাম্মদ আশরাফুল, শাহরিয়ার নাফিসরা ১১-এর ওপর স্কোর নিয়ে উতরে গেছেন ফিটনেস টেস্ট।

তিন দফা ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ তথা আইসিসির দুর্নীতি দমন বিভাগকে অবহিত করেননি সাকিব আল হাসান। তাতেই গত অক্টোবরে নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়েছিলেন তিনি। তার বিরুদ্ধে জুয়াড়িদের প্রস্তাব গোপন করার তদন্ত ২০১৮ সালের শেষ দিকে শুরু করেছিল আইসিসি। নিষিদ্ধের খবর জানার পর শেষবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে এসেছিলেন গত বছরের ২৯ অক্টোবর রাতে।

এ বছরের ২৯ অক্টোবর শেষ হয়েছে সাকিবের এক বছরের নিষেধাজ্ঞা। করোনা মহামারির শুরু থেকে সাকিব ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রে। করোনার কারণে তিনি একা নন, দুনিয়ার সব ক্রিকেটারই ক্রিকেট থেকে দূরে ছিল। সাকিবের এই প্রবাসের সময়টা একটা কারণে দারুণ কেটেছে। এই সময়ে দ্বিতীয় কন্যার পিতা হয়েছেন। দুই কন্যা আর স্ত্রীকে রেখে সেপ্টেম্বরের শুরুতে দেশে ফিরে এসেছেন। আর সেই মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকেই বিকেএসপিতে শুরু কঠোর অনুশীলন।

আইসিসির নিষেধাজ্ঞার কারণে সে অনুশীলন বাইরের কারোর দেখার উপায় ছিল না। এমনকি অনুশীলনের প্রকৃতি নিয়ে কথাও বলেননি সংশ্লিষ্ট কেউ। তারপরও দু-একটা উড়ো কথা ভেসে আসে। আর তাতে জানা যায়, সপ্তাহে একদিন বা কখনো দুই দিন বিরতি নিয়ে নিয়ে চলেছে সাকিবের অনুশীলন। শ্রীলংকা সফর দিয়ে ফেরার লক্ষ্যে গত সেপ্টেম্বরে মোহাম্মদ সালাউদ্দিন ও নাজমুল আবেদিন ফাহিমের অধীনে চার সপ্তাহের অনুশীলন ক্যাম্প সম্পন্ন করেন তিনি। অনুশীলন পর্বটি একেবারে রুদ্ধদ্বার অবস্থায় হয়েছিলো। এই সফর স্থগিত না হলে, ঐ সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট থেকেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে পারতেন সাকিব। কিন্তু এখন ঘরোয়া টুর্নামেন্ট দিয়ে ক্রিকেটে ফিরতে হবে তাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category