বুধবার, জুন ২৪, ২০২০




শুভ জন্মদিন লিওনেল মেসি

মো. নাছির উদ্দীন : আর্জেন্টিনা তথা বার্সেলোনার তারকা ফরোয়ার্ড ও বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবলার লিওনেল আন্দ্রেস মেসির ৩৩তম জন্মদিন আজ। আর্জেন্টিনার রোজারিও শহরে ১৯৮৭ সালের এ দিনে জন্মগ্রহণ করেন বর্তমান সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় ফুটবল তারকা মেসি। তার বাবা হোর্হে হোরাসিও মেসি ইস্পাতের কারখানায় কাজ করতেন এবং মা সেলিয়া মারিয়া কুচ্চিত্তিনি ছিলেন একজন খণ্ডকালীন পরিচ্ছন্নতা কর্মী।
লিওনেল মেসির পরিবারের আদি নিবাস ইতালির আকোনা শহরে। চার ভাই-বোনের মধ্যে মেসির বড় দুই ভাইয়ের নাম রদ্রিগো ও মাতিয়াস এবং ছোট বোনের নাম মারিয়া সল।
ছোটবেলা থেকেই ফুটবলের প্রতি অনেক ঝোঁক ছিল মেসির। যে কারণে মাত্র পাঁচ বছর বয়সে স্থানীয় ক্লাব গ্রান্দোলির হয়ে ফুটবল খেলা শুরু করেন। মেসির প্রথম কোচ তার বাবা হোর্হে।
১১ বছর বয়সে মেসির গ্রোথ হরমোনের সমস্যা ধরা পড়ে। প্রতিদিন প্রায় ৯০০ ডলার খরচ করতে হতো তার সুস্থ হয়ে ওঠার জন্য। কিন্তু মেসির পরিবারের ছিল না সেই ব্যয়ভার বহন করার ক্ষমতা।  স্থানীয় ক্লাব রিভার প্লেট মেসির প্রতি তাদের আগ্রহ দেখালেও সে সময় তারা মেসির চিকিৎসা খরচ বহন করতে অপারগ ছিল।
পরে বার্সেলোনার তৎকালীন ক্রীড়া পরিচালক কার্লেস রেক্সাস মেসির প্রতিভা সম্পর্কে জানতে পারেন। তিনি মেসির খেলা দেখে মুগ্ধ হন। হাতের কাছে কোনো কাগজ না পেয়ে একটি ন্যাপকিন পেপারে তিনি মেসির বাবার সাথে চুক্তি সাক্ষর করেন। বার্সেলোনা মেসির চিকিৎসার সব ব্যয়ভার বহন করতে রাজি হয়। এরপর মেসি এবং তার বাবা  বার্সেলোনায় পাড়ি জমান। সেখানে মেসিকে  বার্সেলোনার যুব একাডেমি লা মাসিয়া’র  সদস্য করে নেওয়া হয়।
বার্সেলোনার জার্সিতে এক দুর্দান্ত ফুটবলারের অভিষেক হয় ২০০৪ সালের ১৬ অক্টেবর। খুদে মেসির বয়স তখন ১৭ বছর। অভিষেকের সাত মাস পর ক্লাবের জার্সিতে প্রথম গোল পান এ ওয়ান্ডার কিড। ২০০৫ সালের ১ মে ঘরের মাঠ ন্যু-ক্যাম্পে আলবাকেট ক্লাবের বিরুদ্ধে প্রথম গোল পান তিনি। এরপর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি।
২০০৫ সালের ১৭ অগাস্ট দেশের জার্সিতে অভিষেক হয় লিওনেল মেসির। হাঙ্গেরির বিরুদ্ধে সে ম্যাচে মাত্র ৯০ সেকেন্ড মাঠে ছিলেন ১৮ বছরে পা দেওয়া মেসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category