শুক্রবার, মার্চ ৮, ২০১৯




শাহজালাল বিমানবন্দরে আবারও নিরাপত্তা চেকিংয়ে অস্ত্র ধরা পড়েনি

নিজস্ব প্রতিবেদক :  আবারও প্রশ্নের মুখে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা! উড়োজাহাজ ছিনতাইচেষ্টা এবং নিরাপত্তা চেকিংয়ে ইলিয়াস কাঞ্চনের পিস্তল ধরা না পড়ার ঘটনা নিয়ে সমালোচনার মধ্যেই ফের বিমানবন্দরে নিরাপত্তা ত্রুটি ধরা পড়েছে। এবার সিলেটগামী এক যাত্রীর সঙ্গে থাকা পিস্তল নিরাপত্তাকর্মীদের চেকিংয়ে ধরা পড়েনি বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে ভিন্ন দাবি জানিয়েছে।

সূত্র জানায়, শুক্রবার সকালে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিএস ১৩১ ফ্লাইটে সিলেটে যাওয়ার জন্য সকাল সাড়ে ১১টার দিকে শাহজালাল বিমানবন্দরের অভ্যন্তরীণ টার্মিনালে আসেন মামুন আলী নামে এক যাত্রী। সঙ্গে থাকা পিস্তল ও সাত রাউন্ড গুলির ব্যাপারে ঘোষণা না দিয়েই তিনি প্রথম নিরাপত্তা চেকিং পার হন। আর্চওয়েতে তার সঙ্গে থাকা অস্ত্রটি ধরা পড়েনি। এমনকি একজন আনসার সদস্য তার শরীর তল্লাশি করেও অস্ত্র শনাক্ত করতে পারেননি। তখন যাত্রী নিজেই নিজের সঙ্গে থাকা পিস্তল ও লাইসেন্স বের করে দেখান এবং নিরাপত্তকর্মী চেক করে কেন অস্ত্র পেলেন না তা জানতে চান।

কিছুক্ষণ পর সেখানে গিয়ে শাহজালাল বিমানবন্দরের এভিয়েশন সিকিউরিটির (এভসেক) পরিচালক নূরে আলম সিদ্দিকী ইউএস-বাংলা কর্তৃপক্ষকে ওই যাত্রীকে অফলোড করতে বলেন। কিন্তু যথাযথ কাগজপত্র না থাকায় ইউএস বাংলা ওই যাত্রীকে অফলোড করেনি। মামুন তার পিস্তল নিয়ে ওই ফ্লাইটেই সিলেটে যান।

এ প্রসঙ্গে সিভিল এভিয়েশনের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম নাইম হাসান সমকালকে জানান, মামুন আলী অস্ত্র থাকার বিষয়টি ঘোষণা না দিয়ে বিমানবন্দরের ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করেন। এ সময় নিরাপত্তা কর্মীরা জিজ্ঞাসা করলে নিজের কাছে অস্ত্র থাকার কথা স্বীকার করেন। পরে মুচলেকা দিয়ে এয়ারলাইন্স ও বিমানবন্দরের নিয়ম মেনে অস্ত্র নিয়ে সিলেটের উদ্দেশে বিমানবন্দর ত্যাগ করেন বলে দাবি এই কর্মকর্তার।

এ ব্যাপারে মামুন আলীর বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category