রবিবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২০




মিরপুর টেস্ট : দ্বিতীয় দিন শেষে চালকের আসনে বাংলাদেশ

মো. নাছির উদ্দীন : জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষে চালকের আসনে স্বাগতিক বাংলাদেশ। মিরপুরে গতকাল শুরু হওয়া টেস্টের প্রথম দিন শেষেই কিছুটা হলেও এগিয়ে ছিল মুমিনুল-মুশফিকরা।

গতকালের ৬ উইকেটে ২২৮ রান নিয়ে ব্যাট করতে নেমে আজ বেশিদূর এগোতে পারেনি সফরকারী জিম্বাবুয়ে। আবু জায়েদ রাহি ও তাইজুল ইসলামের বোলিং তোপে ২৬৫ রানে অলআউট হয়ে যায় চাকাভা-ত্রিপানোরা। তারপর বাংলাদেশ ৩ উইকেটে ২৬৫ রান করে দ্বিতীয় দিন শেষ করে। ৭ উইকেট হাতে রেখে জিম্বাবুয়ে চেয়ে ২৫ রানে পিছিয়ে আছে তামিম-শান্তরা।

এই টেস্টটি বাংলাদেশের জন্য ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। কারণ সর্বশেষ ৬ টেস্টের মধ্যে ৫টিতেই ইনিংস পরাজয়ে হেরেছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। মিরপুরে চলমান জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টে জয়ই বাংলাদেশকে এনে দিতে পারে হারানো আত্মবিশ্বাস।

ব্যাটিংয়ে নেমে ভালো কিছুর ইঙ্গিতই দিয়েছিলেন দুই টাইগার ওপেনার সাইফ হাসান ও তামিম ইকবাল। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই জোড়া বাউন্ডারি হাঁকান ডানহাতি সাইফ। পরের ওভারে তামিমের ব্যাট থেকেও আসে দুই চার। মাত্র ৩ ওভারেই ১৮ রান করে ফেলে বাংলাদেশ।

কিন্তু চতুর্থ ওভারের শেষ বলে হালকা বেরিয়ে যাওয়া ডেলিভারিতে ব্যাট এগিয়ে দেয়ার ভুল করে বসেন সাইফ। ফলে তার ব্যাটের বাইরের কানা ছুঁয়ে বল জমা পড়ে উইকেটরক্ষক রেগিস চাকাভার হাতে। সমাপ্তি ঘটে সাইফের ১২ বলে ৮ রানের ইনিংসের।

মধ্যাহ্ন বিরতির আগে আর বিপদ ঘটেনি বাংলাদেশ শিবিরে। দুজন মিলে ৪ ওভার খেলে যোগ করেন ৭ রান। পরে দ্বিতীয় সেশনেও দারুণ ব্যাট করেন এ দুজন। পাল্লা দিয়েই নিজেদের রান বাড়াচ্ছিলেন শান্ত ও তামিম।

কিন্তু দলীয় ৯৬ রানের মাথায় অফস্টাম্পের বাইরের বল ড্রাইভ করতে গিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে বসেন তামিম ইকবাল । সমাপ্তি ঘটে তার ৮৯ বলে ৪১ রানের ইনিংসের, একইসঙ্গে ভাঙে শান্তর সঙ্গে ১৫৯ বলে ৭৮ রানের জুটি। ব্যক্তিগত ২৭ রান করার মধ্যে দিয়ে বাংলাদেশের প্রথম এবং বিশ্বের ৫০তম ব্যাটসম্যান হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১৩ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেন তামিম ইকবাল।

তামিম না পারলেও বিরতির এক ওভার আগে ফিফটি তুলে নেন শান্ত। ক্যারিয়ারের প্রথম হাফ সেঞ্চুরি করতে ১০৮ বল মোকাবেলা করেন। যাতে ছিল ৬টি বাউন্ডারি।

তৃতীয় উইকেট জুটিতে অধিনায়ক মুমিনুল হককে নিয়ে শান্ত গড়েন ৭৬ রানের জুটি। কিন্তু ৫০তম ওভারে এসে বোকার মতো আউট হয়ে বসেন শান্ত। অভিষিক্ত তিশুমার বেরিয়ে যাওয়া ডেলিভারিতে ব্যাট ছুঁইয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান। ১৩৯ বলে ৭ বাউন্ডারিতে গড়া শান্তর ৭১ রানের ইনিংসটি থামে তাতেই।

এরপর মুমিনুল আর মুশফিকুর রহীম দলকে আর বিপদে পড়তে দেননি। ২১.২ ওভারে চতূর্থ উইকেট জুটিতে তারা দিনশেষে অবিচ্ছিন্ন আছেন ৬৮ রানে। ১২০ বলে ৯ বাউন্ডারিতে টাইগার অধিনায়ক মুমিনুল হক অপরাজিত আছেন ৭৯ রানে। ৩২ রানে অপরাজিত রয়েছেন মুশফিকুর রহিম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category