বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২৯, ২০২০




মাস্ক ছাড়া সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে প্রবেশ নয়

মো. নাছির উদ্দীন : মাস্ক ব্যবহার না করলে কোনো ধরণের সরকারি- বেসরকারি সেবা দেওয়া হবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এর আগে সরকার বাইরে বের হলে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করেছিল। কিন্তু এ বিষয়ে মানুষের মধ্যে শিথিলতা দেখা যায়। এখন সংক্রমণ বৃদ্ধির আশঙ্কায় মাস্ক ব্যবহারের বিষয়ে কঠোর অবস্থান নিল সরকার। গতকাল মন্ত্রিপরিষদ বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী এই বৈঠকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে যোগ দেন মন্ত্রিসভার সদস্যরা। গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠক শেষে মন্ত্রী পরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম জানান, কোভিড প্রতিরোধে ভ্যাকসিনের জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে সরকার। বৈঠকে মুজিব বর্ষের বিশেষ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের খসড়া এবং সম্প্রতি প্রস্তাবিত নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের খসড়ায় অনুমোদন দেওয়া হয়। এছাড়া জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৫তম অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর অংশগ্রহণ ও করোনাভাইরাস মোকাবেলায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগ নিয়ে আলোচনা হয়।
পরে সচিবালয়ে বৈঠকের বিস্তারিত তুলে ধরে মন্ত্রী পরিষদ সচিব জানান, কোভিড ভ্যাকসিন পেতে সব ধরণের চেষ্টা অব্যাহত আছে। করোনা মোকাবেলায় সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠানগুলোতে ‘নো মাস্ক, নো সার্ভিস’ নীতি কার্যকর করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।সব ধরণের জনসমাগমে মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে মসজিদে দিনে অন্তত দু’বার মাস্ক ব্যবহারের বার্তা প্রচার করা হবে বলেও জানান মন্ত্রীপরিষদ সচিব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category