সোমবার, মে ১৮, ২০২০




মাশরাফির ব্রেসলেট থাকছে তার হাতেই

মো. নাছির উদ্দীন : কথা ছিল ব্রেসলেটের নিলাম উপলক্ষ্যে রোববার (১৭ মে) রাত সাড়ে ১০টায় ফেসবুক লাইভে আসবেন মাশরাফি বিন মুর্ত্তজা। সর্বোচ্চ দাম হাঁকানো বিডার ঘোষণা করা হবে লাইভেই। তবে সাড়ে ১০টায় নয়, লাইভ শুরু হলো প্রায় সাড়ে ১২টায়। সমন্বয়কারি প্রতিষ্ঠান ‘অকশন ফর অ্যাকশন’-এর ফেসবুক পেজের টেকনিক্যাল সমস্যার কারণে নির্ধারিত সময়ে লাইভে আসা সম্ভব হয়নি। তবে দেরিতে শুরু হলেও তারপর অবশ্য জমজমাটই হলো নিলাম আয়োজন।
মাশরাফির লাইভের সময়ে তরতর করে দাম বাড়ছিল। শেষ পর্যন্ত দেশের নন-ব্যাংকিং ফাইনান্সের অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ লিজিং অ্যান্ড ফাইনান্স কোম্পানি অ্যাসোসিয়েশন (বিএলএফসিএ) ৪০ লাখ টাকার বিডে মাশরাফির ব্রেসলেট কিনে নেয়। পরে ফেসবুক লাইভে যুক্ত হয়ে সংস্থাটির চেয়ারম্যান মমিনুল ইসলাম জানান, ‘মাশরাফির প্রিয় জিনিসটি মাশরাফিকে উপহার হিসেবে দিতে চান তারা।’
ব্রেসলেটের মূল্য নিয়ে মমিনুল ইসলাম জানালেন, ‘অকশন ফর অ্যাকশন’র সঙ্গে আইপিডিসি’র একটা চুক্তি আছে যে আমরা যে ১০টি প্রোডাক্ট নেব সেটার দামের সঙ্গে আরো ৫ শতাংশ মূল্য আমাদের যোগ করতে হবে। তাই এটার দাম ৪০ লাখ টাকা আর সেই সঙ্গে আরো ৫ শতাংশ ২ লাখ টাকা মোট ৪২ লাখ টাকা এই ব্রেসলেটটির জন্য।’
তিনি আরো বলেন, ‘এই ব্রেসলেটটি মাশরাফির খুবই প্রিয়। ১৮ বছর ধরে এটি তার সঙ্গে আছে। আমি মনে করি এই ব্রেসলেটটি মাশরাফির হাতেই মানায়। ফলে এই ব্রেসলেটটি আমরা আপনাকে উপহার হিসেবে দিতে চাই। আপনি আমাদের এই উপহারটি গ্রহণ করুণ।’
মমিনুল ইসলাম যোগ করেন, ‘এটা (ব্রেসলেট) এখন আপনার কাছেই থাকুক। পরিস্থিতি (করোনা) স্বাভাবিক হলে আমরা একটা অনুষ্ঠান করে এটি পুনরায় আপনাকে আমরা উপহার দিতে চাই।’
এই কথার প্রেক্ষিতে মাশরাফি বলেন, ‘আপনাদের অসংখ্যা ধন্যবাদ। আপনারা এমন একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে আমি বলছি, এটা আপনাদের কাছে থাকলেও আমার একটা ফোটাও কষ্ট হবে না। কারণ এটার উদ্দেশ্য একটাই করোনাকালে বিপদে পড়া মানুষদের সহযোগিতা করা।’
ক্যারিয়ারের শুরুতে লাল-সবুজ রঙে ‘বাংলাদেশ’ লেখা রিস্ট ব্যান্ড পরতেন মাশরাফি। পরে স্টিলের তৈরি করা এই ব্রেসলেটটি বানিয়ে নেন এক বন্ধুর কাছ থেকে। ব্রেসলেটে ইংরেজিতে খোদাই করে লেখা ‘মাশরাফি’। প্রায় ১৬ বছর ধরে এই ব্রেসলেটটি ব্যবহার করছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক।
উল্লেখ্য, এর আগে সাকিব আল হাসান তার ২০১৯ বিশ্বকাপ খেলা ব্যাটটি নিলামে তুলেছিলেন, যেটা ২০ লাখ টাকায় বিক্রি হয়েছে। মুশফিকুর রহিম দেশের পক্ষে তার প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করা ব্যাটটি নিলামে তুলেছিলেন যেটা বিক্রি হয়েছে প্রায় ১৭ লাখ টাকায়। এছাড়া তাসকিন আহমেদ, সৌম্য সরকার, নাঈম শেখ, অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়ক আকবর আলীসহ আরও বেশ কয়েকজন তারকা ক্রীড়াবিদ নিজ নিজ পছন্দের স্মারক নিলামে তুলেছেন। বলা হয়, এর সব অর্থই ব্যায় করা হবে করোনায় বিপদে পড়া মানুষদের জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category