মঙ্গলবার, আগস্ট ৬, ২০১৯




মতলব দক্ষিণে ৯ ডেঙ্গু রোগী সনাক্ত ॥ বাড়ছে আতঙ্ক

ফজলে রাব্বী ইয়ামিনঃ গত দুই দিনে মতলব দক্ষিণে ৯ ডেঙ্গু রোগী সনাক্ত হয়েছে। এসব রোগীদের মধ্যে অধিকাংশ ঢাকা কিংবা চট্রগ্রাম থেকে বাড়িতে এসেছে। এদের মধ্যে একজন গ্রামে বসবাস করা অবস্থায় ডেঙ্গু জীবানুতে আক্তান্ত হয়েছেন।

মতলব দক্ষিণ উপজেলার সদরে বিভিন্ন প্রাইভেট প্যাথলজিতে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত ৬ আগষ্ট বাপ্পি (৩০), পান্না (২৫), লাভলী (২৯), মনজুর আহমেদ (২৬), রাব্বানী (১৫), উম্মে সালমা (২২) এবং গত ৫ আগষ্ট দেলোয়ার (১৮), নুসরাত (১৭), মুমু (২১) নামের রোগীর এনএস১ পরীক্ষায় পজেটিভ ফলাফল এসেছে।

এদের মধ্যে লাভলী নামের রোগী বাড়ির মতলব উত্তর উপজেলার ফতেপুর গ্রামে। তিনি ঘরের গৃহস্থলি কাজের জন্য পুকুরে গেলে ওই সময় একটি মশা কামড় দেয়। এতে কামড় দেওয়ার স্থান লাল ও ফোলা হয়ে যায় এবং রাতে প্রচন্ড জ্বর ওঠে। পরের দিন পরীক্ষা করালে তার শরীরে ডেঙ্গু জীবানুর উপস্থিতি পাওয়া যায়। অপর দিকে পান্না নামের রোগীর বাড়ি মতলব পৌরসভার বাইশপুর গ্রামে। তিনি কয়েকদিন আগে ঢাকায় বেড়াতে যান। সেখানেই ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়েছেন বলে মনে করছেন তার পরিবারের সদস্য। এছাড়া অন্যান্য রোগীদের বিষয়ে প্যাথলজির টেকনেশিয়ানরা বলেন, তারা হয়তো ঢাকা কিংবা চট্রগ্রাম থেকে বাড়িতে বেড়াতে এসেছেন বা গিয়েছিলেন।

এদিকে ডেঙ্গু সনাক্ত করনের জন্য প্রয়োজনীয় কিট নেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে, সরকারি ভাবে মাত্র ১০টি কিট বরাদ্দ পাওয়ার কথা জানান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ একেএমএম মাহবুবুর রহমান। তিনি বলেন, বরাদ্দ কম পেলেও কিনি বিকল্প উপায়ে কিছু কিট সংগ্রহ করেছেন বলে জানান।

ডেঙ্গু রোগ বহনকারী এডিস মশা ও এর চিকিৎসার বিষয়ে উপজেলায় প্রচার প্রচারণা চালানো হলেও আতঙ্কে রয়েছেন উপজেলাবাসী। ঈদের ছুটিতে ঢাকা, চট্রগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে নাড়ীর টানে অনেকে বাড়িতে আসবেন স্বজনদের সাথে ঈদের খুশি ভাগ করে নিতে। আর এই সময়েই উপজেলায় বিভিন্ন স্থানে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বেড়ে যেতে পারে বলে আশঙ্ক করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category