শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২০




মতলবে ভাষা শহীদদের স্বরনে মুইয়্যার আয়োজনে এতিমদের জন্য খাবার ও শহীদ বেদীতে ফুলের শ্রদ্ধা

মোল্লা হাবিবুর রহমান:  মতলব উত্তরে ভাষা শহীদদের স্বরনে ২১ ফেব্রুয়ারী মুইয়্যার আয়োজনে এতিমদের জন্য খাবার ও শহীদ বেদীতে ফুলের শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

ইঞ্জিনিয়ারদের অরাজনৈতিক সংগঠন  মতলব উত্তর ইঞ্জিনিয়ার্স এন্ড আর্কিটেক্টস এসোসিয়েশন (মুইয়্যা) শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ২১ ফেব্রুয়ারীর প্রথম প্রহরে সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক খান (সুমন) ও সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মোঃ আরিফ হোসেন খান এর নেতৃত্বে  উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুলের তোরা দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

ভাষা শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় পাঁচটি মাদ্রাসার এতিমখানায় দুপুরের খাবারের আয়োজন করেন। মাদ্রাসা সমুহ মতলব উত্তরের ছেংগারচর বাজারে মোহাম্মদিয়া(সাঃ)হাফেজিয়া মাদ্রাসা, ঠাকুরচরে আমীরুল মুমেনীন নুরানী হাফেজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানা, সটাকী আহম্মদিয়া হাফেজিয়া এতিমখানা ও মাদ্রাসা,ষাটনল হাফেজ আব্দুল লতিফ দাখিল মাদ্রাসা এবং উত্তর ছেংগারচরে দারুছুন্নাত ছালেহিয়া মফিজুল ইসলাম দ্বীনিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানা উক্ত মাদ্রাসার মসজিদে বাদ জুম্মা মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করা হয়। সকল ভাষা শহীদদের জন্য ও মুসলিম উম্মাহর জন্য মাগফেরাত কামনা করা হয়।

উক্ত কর্মাুচিতে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন সাংগঠনিক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আরিফুল ইসলাম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মোঃ ইমরান হোসেন, কর্মসংস্থান বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আহসান উল্লাহ, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মোঃকামরুজ্জামান, সহ সাংস্কৃতিক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার নুরে আলম, কার্যনির্বাহী সদস্য যথাক্রমে ইঞ্জিনিয়ার ইসমাইল হক সোহাগ, ইঞ্জিনিয়ার গোলাম রসুল ঢালী, ইঞ্জিনিয়ার সুজন ভুঁইয়া, মুইয়্যা সদস্য মাহমুদুল হাসান, ইঞ্জিনিয়ার অালাউদ্দদিন, রাকিবুল ইসলাম প্রমুখ।

উল্লেখ যে, শহীদ বেদীতে ফুল দেওয়ার পর মাননীয় সাংসদ আলহাজ্ব এড.নুরুল আমিন রুহুল এবং উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযুদ্বা এমএ কুদ্দুসের সাথে মত বিনিময় করেন। মুইয়্যা কতৃক আগামী মাস থেকে মতলব উত্তরে একটি পৌরসভা ও ১৪ টি ইউনিয়নে পর্যায়ক্রমে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দ্বারা অসহায় মানুষদের জন্য বিনামূল্যে প্রয়োজনীয় ঔষধ সহ চিকিৎসাসেবা দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে এবং ইতিমধ্যে মতলব উত্তরের প্রায় ৪০ টি বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেনী পর্যন্ত আর্থিকভাবে সামর্থহীন শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার খরচ চালিয়ে যাওয়ার জন্য শিক্ষার্থীদের তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ চলমান রয়েছে।

বিগতদিনে উক্ত সংগঠন বিভিন্ন মানবিক, সেবামূলক, উন্নয়নমুলক কাজ করে আসছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category