বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১৫, ২০২০




মতলবের সুলতানাবাদ ইউপির উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী খোকনের সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়

শহিদুল ইসলাম খোকনঃ চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার ১৪নং সুলতানাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ আবু বকর সিদ্দিক (খোকন) তার নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষনা করেছেন। বৃহস্পতিবার উপজেলার টরকী বাজারে আয়োজিত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় তিনি তার ইশতেহার তুলে ধরেন। সভায় মতলব উত্তর উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
আবু বকর সিদ্দিক (খোকন) বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শকে বুকে লালন করে ১৯৯১ সালে নারায়ণগঞ্জ সরকারি তোলারাম কলেজ ছাত্রলীগে যোগদানের মাধ্যমে রাজনীতি শুরু করি। ১৯৯৫ থেকে ৯৯ইং সাল পর্যন্ত পাঁচ বছর তিনি প্রবাসে কাটান। সেখানে থেকেও তিনি বাংলাদেশী হজ্ব যাত্রীদের সেবা করেছেন। পরবর্তীতে দেশে ফিরে তিনি রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হয়ে আদর্শ ও সততার সাথে এলাকার মানুষের সুখে দুঃখে পাশে থেকে সেবা করার চেষ্টা করেছি। অসহায়, গরীব ও মেধাবী ছাত্র/ছাত্রীদের বই কেনাসহ আর্থিক সহযোগীতা করেছি। এছাড়াও গরীব অসহায়দের চিকিৎসার জন্য খরচ ও অসহায় মেয়েদের বিবাহে সহযোগীতা এবং ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে আর্থিক সহযোগীতা করে আসছি। খেলাধুলা সামগ্রী দিয়েছি এলাকার যুবসমাজের মাঝে।
তিনি আরও বলেন, মহামারী করোনার সময়ও অসহায় গরীব, কর্মহীন বহু মানুষের পাশে একাধিবার নগদ অর্থ বিতরণসহ খাদ্য সামগ্রী দিয়েছি। জীবনের কস্টার্জিত আয় থেকে প্রায় ৭০ ভাগ টাকা মানুষের কল্যাণে ও দলীয় কাজে ব্যয় করেছি ও দলের দুর্দিনেও আওয়ামীলীগের হয়ে একনিষ্টভাবে কাজ করেছি। দল পিছনে আমি অনেক কিছু ব্যয় করেছি কিন্তু দল থেকে কোন সুবিধা কখনো নেই নি। আমার দ্বারা দল বা এলাকার উপকার ছাড়া কোন ক্ষতি হবে না এবং আমার জীবনে কখনো আমি মারামারি, ঝগড়া-বিবাদ, সন্ত্রাসী চাঁদাবাজি, অন্যায় অবিচার করিনি বুবে হাত দিয়ে বলতে পারি। আমি একজন প্রকৃত সেবক হিসেবে জগণের পাশে থাকতে চাই।
নির্বাচনী ইশতেহার উল্লেখ করে আবু বকর সিদ্দিক খোকন বলেন, আমার বাকী জীবনটুকু যেন আপনাদের সাথে থেকে নিস্বার্থভাবে সুলতানাবাদ ইউনিয়নের সঠিক কল্যাণমুলক কাজ যেমন, সমাজে থকে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, অন্যায় অবিচার নির্মূল করা, ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করা, ঘুষ দুর্নীতি বন্ধ করা, মাদক মুক্ত করা এবং সরকারের ঘোষনা অনুযায়ী দারিদ্র মুক্ত ইউনিয়ন গঠন করা। রাস্তা-ঘাট স্কুল কলেজের উন্নয়ন করা, মানুষের মৌলিক চাহিদা পূরণে কাজ করা, গরীবের হক সঠিকভাবে বুজিয়ে দেওয়া, প্রত্যেককে যার যার অবস্থান থেকে সম্মান করা। জগড়া বিবাদ হানা হানি বন্ধ করা সহ একটি সুষ্ঠু সুন্দর, শান্তি প্রিয় আদর্শ ইউনিয়ন গঠন করা। আমি নির্বাচিত হয়ে জনসেবার মাধ্যমে দেখাতে চাই একজন সৎ ও নিষ্ঠাবান লোক কাকে বলে এবং একজন চেয়ারম্যান কেমন হওয়া উচিৎ। তাই আপনারা আমাকে নির্বাচিত করে সেবা করার সুযোগ দিন।
নির্বাচন নিয়ে খোকন বলেন, যদি সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়, তাহলে আমি বিপুল ভোটে নির্বাচিত হবো। আমি জনগণের প্রার্থী, জনগণের মতামতের ভিত্তিতে আমি নির্বাচন করছি। তাই সুন্দর পরিবেশে নির্বাচন হলে, আমি প্রায় ৭৫ ভাগ ভোট পাবো বলে আমি বিশ্বাস করি। খোকন বলেন, আমার ইউনিয়নে ৪ টি ভোট কেন্দ্র খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। ৬নং ওয়ার্ড আমুয়াকান্দা প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৭নং ওয়ার্ড চরপাথালিয়া প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৮নং ওয়ার্ড বড় লক্ষীপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ৯নং ওয়ার্ড ভোট কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ তালিকায় রয়েছে, যা আমি প্রশাসনকে অবগত করেছি। আমি নির্বাচন কমিশন এবং প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠু নির্বাচন আশা করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category