সোমবার, জুন ৮, ২০২০




বাঁচতে দাও………. প্রফেসর মোঃ জাকির হোসেন জামাল

সুন্দর এই পৃথিবী তোমার পরম রহমতের প্রকাশ
আঠারো হাজার মাখলুকাত,শ্রেষ্ঠ সৃষ্টি মানুষের বিকাশ,
জগতে লক্ষ লক্ষ জীব,ভারসাম্যে তোমার দয়া কাম্য
জীবন-জীবিকার প্রয়োজনে তোমার অপূর্ব সামঞ্জস্য।

মানব-সভ্যতার গুরুত্বপূর্ণ উপাদান,কি সুন্দর পরিবেশ
প্রাণের ধারক,জীবন শক্তি জোগানে মনোনিবেশ,
হাজার বছরের প্রাণির ভারসাম্য,বন্ধুত্বেই শুধু মুক্তি
বিরূপ পরিবেশে বাঁচতে,মানুষ-জীবে পরম-যুক্তি।

মাটি-পানি-বায়ু-খাদ্যশস্য তোমার খাস নেয়ামত
আকাশ-বাতাস-সমুদ্র, মানবের তরে কুল-কায়েনাত,
সুখ-দুঃখ- আনন্দ-বেদনার এত মধুর আয়োজন
বিধাতা তোমার সদিচ্ছা-দয়ার শ্রেষ্ঠ প্রতিফলন।

প্রকৃতি আমার ‘মা’,সবকিছুই দেয় বিলিয়ে
মানুষ-পশুপাখি-গাছ সবাইকে দেয় মিলিয়ে,
সজীব বস্তু একের সাথে অন্যের কি সখ্য!
একে অন্যের প্রয়োজনে সর্বস্ব বিলাতে সচেষ্ট নিত্য।

সমতল ভূমিতে খাদ্য-শস্য,ফল-মূলের ভাণ্ডার
কেমিক্যাল-সার-কীটনাশক ব্যবহার,উর্বরতা ছারখার,
মাটির ক্ষমতা বিনাশ করো,ফ্যাটম্যান-লিটলবয় বোমায়
আহত-নিহত সহস্র-লক্ষ ঠিকানা হলো কোমায়।

পেট্রল-ডিজেল-ইঞ্জিন-রেফ্রিজারেটর উষ্ণতা বাড়ায়
বারো ডিগ্রি ফারেনহাইট প্রতিদিনে তাপ বৃদ্ধি হয়,
কার্বন-ডাইঅক্সাইড পৃথিবীর তাপমাত্রা শীর্ষে তুলে দেয়
উষ্ণতা বৃদ্ধিতে বরফ গলে,উপকূল সমুদ্রে ডুবে যায়।

শিল্প বর্জ্য,প্লাস্টিক, নদী-সমুদ্রের পানি করে দূষণ
সিএফসি গ্যাসে ওজোনস্তরের মারাত্মক ক্ষতিসাধন,
স্তরের ভিতরে ছিদ্র করে,ব্ল্যাকহোল এর রূপ ধরে
আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি মানবের ক্যান্সার সৃষ্টি করে।

শত প্রজাতির গাছ মাছ পশু পাখি জীব হচ্ছে বিলোপ
শুনতে কি পাও,স্বজন-বন্ধু-প্রতিবেশী হারানোর বিলাপ
বিধাতার সৃষ্টির সমঝোতা -বিধানের ধ্রুব -নিয়ন্ত্রণ
গাছ কাটো,জীব বিনাশ করো জীব-বৈচিত্র্য অনিয়ন্ত্রণ।

মাটি বলে আমার ফুসফুসগুলো,কেটে জ্বালাও আগুন
শ্বাস-প্রশ্বাস হচ্ছে বন্ধ আমার,কি কষ্ট নিদারুণ!
আমাকে দিয়ে তোমার সৃষ্টি,শ্রেষ্ঠ কাঠামো-অবয়ব
মৃত্যুর পর তোমাকে আবার,আমার বুকে দেয় কবর।

পশুর ক্ষুধা নিবৃত্ত হয় কভু,পেট ভরে যখন খায়
পুঁজিবাদী হিংসুক মিথ্যাবাদী লোভীর,ক্ষুধার শেষ নাই,
অন্তরে-মননে বিশুদ্ধ হও,লোভ লালসা ভুলে
বাড়াবাড়ি করলে কঠিন শাস্তি,চড়তে হবে শূলে।

কবি-সাহিত্যিক,গবেষক নৃ-বিজ্ঞানী,বড়ই পেরেশান
ধরিত্রী,মানুষ বাঁচাতে কে আছ শক্তিমান-আগুয়ান?
কথামালা বক্তৃতায় সীমাবদ্ধ নহে,বাস্তবে হাল ধরবো
সংঘবদ্ধ-একতাই শক্তি,শপথ নেই” ধরিত্রী বাঁচাবো।”

শিশু-বৃদ্ধ,আবাল-বনিতা,শ্বাস-প্রশ্বাস প্রতিক্ষণ
বাঁচার জন্য সবচেয়ে দামী -উপাদান অক্সিজেন,
বাতাসের দূষণ,সবাই মিলে চিরতরে করি বন্ধ
অসুস্থ প্রতিযোগিতা বন্ধ করি ,ভুলে যাই সকল দ্বন্দ্ব।

জগতে শুধুই দূষণের ছবি,সভ্যতা-অগ্রগতির দোহাই
সভা-সেমিনার,বক্তৃতা অফুরন্ত,শক্তিমানের বড়াই,
আমি আসিয়াছি ধরায়,বাঁচতে চাই,বন্ধ করো সব দূষণ
আমাকে বাঁচতে দাও,পবিত্র হাসিতে দেখি তোমার মন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category