শুক্রবার, জানুয়ারি ৩১, ২০২০




বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী প্রীতি জিনতার জন্মদিন আজ

মো. নাছির উদ্দীন : বলিউডের একসময়ের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী প্রীতি জিনতার ৪৬তম জন্মদিন আজ। ১৯৭৫ সালের ৩১ জানুয়ারি ভারতের হিমাচল প্রদেশের শিমলা জেলায় জন্মগ্রহণ করেন এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী। তিনি চলচ্চিত্র অভিনেত্রীর পাশাপাশি একজন প্রযোজক ও উদ্যোক্তা। হিন্দী চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় নায়িকা হিসেবে সুপরিচিত হলেও প্রীতি জিনতা তেলেগু, পাঞ্জাবি ও ইংরেজি ভাষার চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন। শুধু কেন্দ্রীয় চরিত্রই নয়, পার্শ্ব চরিত্র ও বিচিত্র পর্দার ব্যক্তিত্ব হিসেবে চলচ্চিত্রে আবির্ভূত হন। চলচ্চিত্রে অসামান্য অবদানের জন্য ক্যারিয়ারের ভান্ডারে একাধিক পুরস্কার অর্জন করেন প্রীতি জিনতা। যার মধ্যে রয়েছে দুটি করে ফিল্মফেয়ার ও স্ক্রিন পুরস্কার, এবং তিনটি করে আইফা, জি সিনে ও স্টারডাস্ট পুরস্কার।

প্রীতি জিনতা ইংরেজি ও অপরাধ মনোবিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি অর্জনের পর ১৯৯৮ সালে ‘দিল সে’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বড় পর্দায় আবির্ভূত হন এবং একই বছর সোলজার চলচ্চিত্রে অভিনয় করে ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা অর্জন করেন। এই চলচ্চিত্রগুলোতে অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ নবাগত অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার অর্জন করেন। ২০০০ সালে কিশোরী একক মাতা চরিত্রে ক্যায়া কেহনা চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন প্রীতি জিনতা।

২০০৩ সালে নাট্যধর্মী ‘কাল হো না হো’ ছবিতে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার অর্জন করেন। পরবর্তীতে টানা দুই বছর ভারতের সর্বাধিক ব্যবসাসফল বিজ্ঞান কল্পকাহিনী ‘কোই মিল গয়া’ এবং বীর-জারা দুটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করে চারিদিকে হৈচৈ ফেলে দেন প্রীতি জিনতা। তিনি স্বাধীন আধুনিক ভারতীয় নারী চরিত্রে সালাম নমস্তে (২০০৫) ও ভারতের বাইরে সর্বাধিক আয়কারী কভি আলবিদা না কেহনা (২০০৬) ছবিতে কাজ করেন। তার প্রথম আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র ছিল কানাডীয় হ্যাভেন অন আর্থ চলচ্চিত্রটি, যার জন্য তিনি ২০০৮ সালে শিকাগো আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর সিলভার হুগো পুরস্কার লাভ করেন।

অভিনয়ের পাশাপাশি ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) কিংস ইলাভেন পাঞ্জাবের কর্ণধারও প্রীতি জিনতা। জন্মদিনে বলিউডসহ ভারতের ক্রিকেট অঙ্গনের তারকারাও তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। এছাড়া, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও টুইটারে ভক্তদের শুভেচ্ছা আর ভালোবাসায় ভাসছেন প্রীতি জিনতা।

প্রীতি জিনতা ১৯৭৫ সালের ৩১শে জানুয়ারি হিমাচল প্রদেশের শিমলা জেলায় এক রঢ়ু পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা দুর্গানন্দ জিনতা ভারতীয় সেনাবাহিনীর একজন কর্মকর্তা ছিলেন। প্রীতির যখন ১৩ বছর বয়স, তখন তিনি এক গাড়ি দুর্ঘটনায় মারা যান। এই দুর্ঘটনাকালে তার মাতা নিলপ্রভাও সেই গাড়িতে ছিলেন। তিনি গুরুতর আঘাতপ্রাপ্ত হন এবং টানা দুই বছর শয্যাশায়ী ছিলেন। প্রীতি জিনতা এই দুর্ঘটনা ও তার পিতার মৃত্যুকে খুবই বেদনাদায়ক বলে উল্লেখ করেন। যা জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দেয় ও তাকে দ্রুত পরিপক্ক হতে বাধ্য করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category