মঙ্গলবার, নভেম্বর ২০, ২০১৮




বদির আসনে স্ত্রী, রানার আসনে বাবা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ মাদক এবং খুনের ঘটনায় বিতর্কিত দু্ই সংসদ সদস্যকে মনোনয়ন না দিয়ে তাদের স্বজনদের নৌকা প্রতীক দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আওয়ামী লীগ।

কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফ (কক্সবাজার-৪) আসনে আবদুর রহমান বদির বদলে নৌকা দেয়া হচ্ছে তার স্ত্রী শাহীন চৌধুরীকে। ইয়াবার কারবারে বদির নাম এসেছে বারবার। গোয়েন্দাদের একাধিক তালিকাতেও তাকে গডফাদার বলা হয়েছে।

আর টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলা নিয়ে গঠিত (টাঙ্গাইল-৩) আসনের সংসদ সদস্য আমানুর রহমান রানার আসনে নৌকা দেয়া হচ্ছে তার বাবা আতাউর রহমান খানকে। মুক্তিযোদ্ধা ফারুক হত্যা মামলায় রানা বর্তমানে কারাগারে। রানার বাবা টাঙ্গাইলে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য।

বাংলাদেশে ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ মঙ্গলবার এই তথ্য জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

এবার জাতীয় নির্বাচনে বিতর্কিতদেরকে মনোনয়ন দেয়া হবে না বলে বারবার জানিয়েছে আওয়ামী লীগ। ওবায়েদুল কাদের বলেন, ‘যাদের নিয়ে কন্ট্রোভার্সি (বিতর্ক) আছে। আমি দুটি আসনের কথা বলতে পারি, একটা হচ্ছে কক্সবাজার সেটা উখিয়া-টেকনাফ, সেখানে আমাদের আবদুর রহমান বদিকে ড্রপ করে তার স্ত্রীকে দিয়েছি। বদিকে আমরা মনোনয়ন দেইনি। এটা আমি আগে ভাগেই বলছি যদিও আমরা ঘোষণা দেইনি।’

‘আরেকটা হচ্ছে টাঙ্গাইলের (টাঙ্গাইল-৩) ঘাটাইলে মার্ডারের অভিযোগে এমপি (আমানুর রহমান রানা) কারাগারে। সেখানে জেলা আওয়ামী লীগের ভাইস প্রেসিডেন্ট রানার বাবা আতাউর রহমান খানকে মনোনয়ন  দেয়া হয়েছে।’

তবে এই দুই আসনে জরিপে রানা ও বদি অন্যদের চেয়ে এগিয়ে আছেন বলেও জানান ওবায়দুল কাদের।
বর্তমান এমপি-মন্ত্রীদের কারও কারও মনোনয়নের তালিকা থেকে বাদ পড়ার যে খবর সংবাদমাধ্যমে আসছে, সে বিষয়ে কাদেরের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন সাংবাদিকরা। জবাবে তিনি বলেন, ‘কোন মন্ত্রী খারাপ আমাকে বলুন। কীভাবে মেজর (যাচাই) করব? বেইজটা কী যে ওমুক খারাপ লোক? তারপরও যাদের নিয়ে বিতর্ক আছে দুটি সিটের কথা বলতে পারি, একটি হচ্ছে উখিয়া-টেখনাফ, সেখানে বদিকে ড্রপ করে তার স্ত্রীকে মনোনয়ন দিচ্ছে, যদিও আমরা এখনও ঘোষণা করিনি।’

বিতর্কের কারণে বদিকে বাদ দিলেও তার ঘরেই কেন মনোনয়ন দেওয়া হচ্ছে, সেই প্রশ্নে কাদের বলেন, ‘ঘরে কি সবাই অপরাধী? আপনি অপরাধী হলে কি পরিবারের সব খারাপ লোক? বদি সম্পর্কে যে কন্ট্রোভার্সি (বিতর্ক) আছে, তার কোনো প্রমাণ আছে? তবু কন্ট্রোভার্সি থাকায় অলটারনেটিভ (বিকল্প) বেছে নিয়েছি।’

শরিকদের সঙ্গে আসন বণ্টন নিয়ে এক প্রশ্নে আওয়ামী লীগ নেতা আবার বলেন, ‘আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শরিকদের ৬৫-৭০টি আসন দেওয়া হতেপারে। চূড়ান্ত তালিকা ২৫ নভেম্বর প্রকাশ করা হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category