রবিবার, মে ৩, ২০২০




পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক হলেন মতলবের কৃতি সন্তান কামরুল আহসান বিপিএম

শামসুজ্জামান ডলারঃ চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলার কৃতি সন্তান কামরুল আহসান পিপিএম অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক হিসাবে মনোনীত হয়েছেন। তিনি এন্টি টেররিজম ইউনিটের দায়িত্ব পালন করবেন। কামরুল আহসান ১৯৬৬ সালে চারদিকে নদী বেস্টিত মতলব উত্তর উপজেলার মেঘনা পাড়ের উত্তম ইমামপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেণ।

তিনি ময়মনসিংহ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক এবং ঢাকার সাউথ ইস্ট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ব্যবসায় প্রশাসন বিষয়ে(এমবিএ) স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন।

১৯৯১ সালে বিসিএস (পুলিশ) ক্যাডার এ যোগদান করেন। মৌলিক ও বাস্তব প্রশিক্ষণ শেষে খাগড়াছড়ি জেলার সহকারি পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদানের পর যথাক্রমে চট্টগ্রামের হাটহাজারী সার্কেল এএসপি, এ এসপি(ডিএসবি), ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের এডিসি, ফেনী জেলার এডিশনাল এসপি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

গৌরবময় পেশা জীবনে তিনি শরিয়তপুর, চট্টগ্রাম ও যশোর জেলার পুলিশ সুপার, পুলিশ সদর দপ্তরের এডিশনাল ডিআইজি (সংস্থাপন) ও এডিশনাল ডিআইজি (ট্রেনিং) এবং রেলওয়ে রেঞ্জের ডিআইজি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

২০১৬ সালে তিনি সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। সর্বশেষ ২০২০ সালের ৩মে পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক হিসেবে নিয়োগ লাভ করেন।

এর আগে তিনি ২০১৮ সালে গুরুত্বপূর্ণ মামলার রহস্য উদঘাটন, অপরাধ নিয়ন্ত্রণ, দক্ষতা, কর্তব্য নিষ্ঠা, সততা, শৃঙ্খলা মূলক আচরণের মাধ্যমে প্রশংসনীয় হয়ে প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে পুলিশ পদক লাভ করেন। ২০১৪ সালে সিলেট মহানগর পুলিশের কমিশনার হিসেবে যোগদান করেন। চাকুরির শুরুতে রাজশাহীতে অবস্থিত বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমীর মৌলিক প্রশিক্ষণের পাঠ্যক্রমে (একাডেমিক) শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করায় আইজিপি শিল্ড অর্জন করেন।

বাংলাদেশ পুলিশে অসাধারণ ও দৃষ্টান্তমূলক চাকুরী স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি দুইবার আইজি ব্যাচ অর্জন করেন। মালয়েশিয়া, ভিয়েতনাম, আমেরিকা ও ইতালিতে বিভিন্ন বিষয়ে উচ্চতর প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে দায়িত্বের অংশ হিসাবে থাইল্যান্ড, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য, সুইজারল্যান্ড, ঘানা, গাম্বিয়া, বাহারাইন, সৌদি আরব, মিশর সহ বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করেন।

আন্তর্জাতিক স্বনামধন্য এই পুলিশ কর্মকর্তা মোঃ কামরুল আহসান জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে “পুলিশ এডভাইজার” হিসাবে সিয়েরা-লিওন ও সুদানে দায়িত্ব পালন করেন। বিভিন্ন মিশনে দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালনের স্বীকৃতিস্বরূপ ‘জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা পদক’ লাভ করন।
ব্যক্তিজীবনে তিনি মুনমুন ফারজানার সাথে দাম্পত্য জীবনে আবদ্ধ হন এবং বর্তমানে তার ৩ পুত্রসন্তান রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category