বুধবার, ডিসেম্বর ৪, ২০১৯




নবীনরা হাল ধরতে চায় ফরিদগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলন চলতি মাসের শেষ দিকে অনুষ্ঠিত হবে। কেন্দ্রীয় সম্মেলনের পূর্বে মহানগর, জেলা, উপজেলায়, পৌরসভা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে আওয়ামী লীগের সম্মেলন হচ্ছে। ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন শেষ হওয়ার পরে অনুষ্ঠিত হবে উপজেলা আওয়ামী লীগ সম্মেলন।

তারই ধারবাহিকতায় চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য অনেকে প্রচারণায় নেমেছেন। গণমাধ্যমে এবং রাজনৈতিক অঙ্গনে নতুন নেতৃত্ব নিয়ে চলছে ব্যাপক আলোচনা। প্রত্যেক প্রার্থীই তাদের দলীয় কার্যক্রম তুলে ধরছেন। আবার অনেকে অঙ্গীকার করছেন নির্বাচিত কিংবা মনোনীত হলে উপজেলা আওয়ামী লীগ সক্রিয় করে তুলবেন। ইতোমধ্যে অনেকের নামও আলোচনায় আসছেন। তবে সাবেক ছাত্রনেতাদের সংখ্যাই বেশী।

খোজ নিয়ে  জানাগেছে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক নিয়মানুযায়ী প্রতি ৩ বছর পরে কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে। সেই আলোকে ফরিদগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে। এখন সবার প্রত্যাশা  কবে উপজেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিল হবে। সেই অপেক্ষায় নতুন করে নেতা হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন অনেকে।

উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের সাথে আলাপ করে জানাগেছে, চাঁদপুর জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারী আবারও নিজের পদ ধরে রাখার লড়াইয়ে মাঠে নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছেন। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আবুল খায়ের পাটওয়ারীর অংশ গ্রহন চোখে পড়ার মত।

চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম-বিষয়ক সম্পাদক ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক আবুল কাসেম কন্ট্রাক্টর এর নাম সভাপতি পদে আলোচনায় রয়েছে।

বর্তমান উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আবু সাহেদ সরকার সভাপতি প্রার্থী হিসাবে আলোচনায় রয়েছেন। কোন কারণে সভাপতি না হতে পারলে সাধারণ সম্পাদক পদ তার জন্য এখন খুবই জরুরি।

ফরিদগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে পরাজিত তোফায়েল আহম্মেদ ভূঁইয়া সভাপতি পদে প্রার্থী হিসাবে প্রচারণা চালাচ্ছেন। তবে তিনি বেশীরভাগ সময় ঢাকায় অবস্থান করেন। উপজেলা নির্বাচন কেন্দ্র করে কিছুটা সময় এলাকায় আসা-যাওয়া শুরু হয়েছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি আমির আজম রেজা ও সভাপতি প্রার্থী হিসাবে আলোচনায় আছেন এবং সব সময় পুরো উপজেলা চষে বেড়াচ্ছে।

ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও বাংলাদেশ আ’লীগ উপ- কমিটির সহ- সম্পাদক মো. বেলায়েত হোসেন সুমন, বর্তমান উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জি এস তসলিম, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাবেক সদস্য মহিউদ্দিন খোকা, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ওয়াহিদুর রহমান রানা, জেলা পরিষদের সদস্য মশিউর রহমান মিঠু, ফরিদগঞ্জ পৌর মেয়র মাহফুজুল হক, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি খাজে আহাম্মদ মজুমদার, পৌর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কামরুল হাসান সউদ সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় রয়েছেন।

তবে ফরিদগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের যারা বিগত দিনে সংগঠনের জন্য সক্রিয়ভাবে কাজ করেছেন, নির্যাতনের শিকার হয়েছেন এবং আগামীতে সংগঠনের অবস্থান আরো শক্তিশালী করবেন এমন ব্যাক্তিদেরকে গুরুত্বপূর্ন পদে দেয়া প্রয়োজন বলে মনে করেন তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা।

উপজেলা পর্যায়ের একাধিক নেতা বলেছেন, ফরিদগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের নতুন কমিটি নির্বাচিত করার জন্য খুব দ্রুত প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।

Attachments area

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category