রবিবার, জানুয়ারি ২৭, ২০১৯




দুদক চেয়ারম্যানের হঠাৎ অভিযান অবশেষে যা হলো বিদ্যালয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ  সীতাকুণ্ডে বিভিন্ন স্কুলে অনিয়মের খবর পেয়ে দুদক চেয়ারম্যান সেখানে হঠাৎ অভিযানে যান। গিয়ে অনিয়ম পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তিনি। রবিবার এ ঘটনা ঘটেছে।

জানা যায়, রবিবার সকাল ১০টায় দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ ভাটিয়ারী ইউনিয়নস্থ ভাটিয়ারী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অভিযানে যান। সেখানে গিয়ে ১১ জন শিক্ষকের মধ্যে দুইজন শিক্ষকের অনুপস্থিতির কারণ জানতে চাইলে স্কুল কর্তৃপক্ষ তার ব্যাখা দিতে পারেনি।তাছাড়া স্কুলে ছাত্র-ছাত্রীদের উপস্থিতির কাগজপত্র পরীক্ষা করে দেখেন, যে সকল শিক্ষার্থী গত শনিবার অনুপস্থিত ছিল তাদের অনেককে রবিবার উপস্থিতি দেখানো হয়। তবে রবিবার সকাল ১০টা পর্যন্ত ছাত্রছাত্রীদের রোল কলও করা হয়নি। কোন বিষয়েই স্কুল কর্তৃপক্ষ কোন ধরনের ব্যাখা দিতে পারেনি। এতে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে।

সেখান থেকে আকস্মিক অভিযানে যান সোনাইছড়ি ইউনিয়নের শীতলপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে। সে স্কুলে টেস্ট পরীক্ষায় ফেল করা কোন শিক্ষার্থীকে স্কুল কর্তৃপক্ষ এবার এসএসসি পরীক্ষায় সুযোগ (সেট-আপ) না দেওয়ায় দুদক চেয়ারম্যান সন্তোষ প্রকাশ করেন। তবে নবম শ্রেণিতে ফেল করা ছাত্রছাত্রীদের কাছ থেকে ২ হাজার টাকা নিয়ে দশম শ্রেণিতে প্রোমোশন দেওয়ার ঘটনায় অসন্তোষ প্রকাশ করেন।

এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, ‘এটা অনৈতিক এবং শিক্ষাক্ষেত্রে অনৈতিকতার কোনো স্থান থাকবে না। প্রয়োজনে দুদক দণ্ডবিধির ১৬৬ ধারা প্রয়োগ করবে। আমাদের সন্তানদের শিক্ষা নিয়ে কাউকে ছিনিমিনি খেলতে দেওয়া হবে না।সুতরাং এমন আইন অমান্য করলে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড বা অর্থদণ্ড বা উভয়দণ্ডে দণ্ডিত হতে হবে ‘

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category