বুধবার, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০




চ্যাম্পিয়ন্স লিগ : বার্সেলোনাকে রুখে দিলো নাপোলি

মো. নাছির উদ্দীন : চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর প্রথমলেগে প্রথমে গোল খেয়ে পিছিয়ে পড়লেও ফরাসির বার্সেলোনার তারকা অঁতোয়ান গ্রিজমানের নৈপুণ্যে হারের লজ্জা থেকে রক্ষা পেলো বার্সেলোনা। ফরাসির ফরোয়ার্ডের দ্বিতীয়ার্ধের গোলে চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর প্রথম লেগের ম্যাচে নাপোলির মাঠ থেকে ড্র নিয়ে ফিরেছে কাতালান ক্লাবটি।

নাপোলির স্তাদিও সান পাওলোয় গতকালের অনুষ্ঠিতব্য ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়। প্রথমার্ধে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন ড্রিস মের্টেন্স।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচে সমতা ফেরান বার্সেলোনার গ্রিজমান।
প্রতিপক্ষের মাঠে গোল করার সুবিধা নিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালের পথে অনেকটাই এগিয়ে রইল লা লিগার চ্যাম্পিয়নরা। দল দুটির ফিরতি লেগের ম্যাচ গোলশূন্য ড্র হলেই শেষ আটের টিকিট পাবে বার্সেলোনা।

ম্যাচ শুরুর ৩০তম মিনিটে এগিয়ে যায় স্বাগতিক নাপোলি। সতীর্থের কাছ থেকে বল পেয়ে ডান পায়ের অসাধারণ এক শটে বার্সেলোনা গোলরক্ষক মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগানকে পেছনে ফেলেন মের্টেন্স। তাতে নাপোলির হয়ে সর্বোচ্চ ১২১টি গোলের রেকর্ড স্পর্শ করলেন বেলজিয়ান এই ফরোয়ার্ড। এতদিন রেকর্ডটি ছিল চেকোস্লোভাকিয়ার মিডফিল্ডার মারেক হামসিকের দখলে।

প্রথমার্ধে হতাশ করা বার্সেলোনাকে দ্বিতীয়ার্ধে আর আটকে রাখতে পারেনি নাপোলি। বিরতিতে থেকে ফিরে ৫৩ মিনিটে ম্যাচে সমতা ফেরায় কিকে সেতিয়েনের দল।

পর্তুগিজ রাইটব্যাক নেলসন সেমেদোর পাসে বল পেয়ে ডিবক্সের মাঝামাঝি থেকে ডান পায়ের শটে জালে বল জড়ান গ্রিজমান।
দ্বিতীয়ার্ধে বেশ কিছু সুযোগ পেলেও তা কাজে লাগাতে পারেনি বার্সেলোনা। দলটির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় লিওনেল মেসিকে পুরোম্যাচে আটকে রাখতে সামর্থ্য হয় নাপোলির ইস্পাতকঠিন ডিফেন্স।

ম্যাচের শেষ দিকে দশ জনের দলে পরিণত হয় বার্সেলোনা। স্বাগতিক দলের স্প্যানিশ মিডফিল্ডার ফাবিয়ান রুইসকে বাজেভাবে ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন বার্সেলোনার চিলিয়ান মিডফিল্ডার আর্টুরো ভিদাল।

১৮ মার্চ ফিরতি পর্বের ম্যাচ বার্সেলোনার মাঠ ক্যাম্প ন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category