বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৯




চকবাজারে কিছু লাশ পুড়ে কয়লা

নিজস্ব প্রতিবেদক:  পুরান ঢাকার চকবাজার এলাকায় রাজ্জাক ভবনে লাগা আগুনের ঘটনায় উদ্ধার করা বেশ কিছু লাশ পুড়ে কয়লা হয়ে গেছে। চেহারা দেখে শনাক্ত করার উপায় নেই। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান সোহেল মাহমুদ এ কথা জানান।

 

সোহেল মাহমুদ জানিয়েছেন, যেসব লাশ পুড়ে গেছে কিন্তু চেহারা দেখে শনাক্ত করা যায় তাদের ময়নাতদন্ত করে আজকেই স্বজনদের দেওয়া হবে। তবে, যাদের লাশ পুড়ে কয়লা হয়ে গেছে শনাক্ত করার জন্য তাদের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হবে। এ জন্য কিছুটা সময় লাগতে পারে।

 

আজ ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গের সামনে সোহেল মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, তাদের এখানে এখন পর্যন্ত মোট ৬৭টি লাশ আনা হয়েছে। তার মধ্যে কিছু লাশ আছে যেগুলো পুড়ে গেছে কিন্তু চেহারা শনাক্ত করা যাবে। কিছু লাশ পুড়ে কয়লা হয়ে গেছে। চেহারা দেখে বা ফিঙ্গারপ্রিন্টে শনাক্ত করা সম্ভব নয়। তাদের জন্য ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করতে হবে। যাদের চেহারা শনাক্ত করা যাবে সেগুলো ময়নাতদন্ত করে আজ লাশ বুঝিয়ে দেওয়া হবে।

 

সোহেল মাহমুদ বলেন, তারা কয়েকটি ইউনিটে ভাগ হয়ে কাজ করছেন বলে তাদের কাজের ক্ষেত্রে খুব বেশি সমস্যা হবে না। এর আগে সাভারের রানা প্লাজা ধসের ঘটনায় এ ধরনের কাজ করতে হয়েছিল তাঁদের।

 

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) জাবেদ পাটোয়ারী সকাল সাড়ে আটটার দিকে ব্রিফিংয়ে জানান, ৭০ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আরও লাশ থাকতে পারে। উদ্ধার কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত লাশের সংখ্যা জানা যাবে না বলছে ফায়ার সার্ভিস।

 

গতকাল রাত ১০টা ১০ মিনিটে নন্দকুমার দত্ত সড়কের চুরিহাট্টা মসজিদ গলির রাজ্জাক ভবনে আগুন লাগে। রাতে পৌনে একটার দিকে পাশের কয়েকটি ভবনে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। চকবাজার এলাকার গ্যাস লাইন থেকেও ওই সময় আগুন বের হচ্ছিল। অগ্নিকাণ্ডের পর ওই এলাকার বিদ্যুৎ-সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রাজ্জাক ভবনের নিচতলায় রাসায়নিক দ্রব্যের কারখানা ছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category