রবিবার, মে ১০, ২০২০




করোনাভাইরাস : থামছে না আক্রান্ত ও মৃত্যুর মিছিল 

মো. নাছির উদ্দীন : প্রতিনিয়ত প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। সেইসাথে দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর মিছিল। সারাবিশ্বে এখন পর্যন্ত ২ লাখ ৮০ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণ কেড়েছে করোনাভাইরাস। আর আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৪১ লাখ।
ওয়ার্ল্ডমিটারের তথ্য অনুযায়ী, আজ ১০ মে, রবিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত প্রাণঘাতী করোনসভাইরাসে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪১ লাখ ৭৮৮ জন। মৃত্যুবরণ  করেছেন ২ লাখ ৮০ হাজার ৪৩২ জন। বিপরীতে ১৪ লাখ ৪১ হাজার ৪৭৮ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। অপরদিকে চিকিৎসাধীন রোগীর সংখ্যা ২৩ লাখ ৭৮ হাজার ৮৭৮ জন, যাদের মধ্যে ৪৭ হাজার ৬৮১ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।
আক্রান্ত ও মৃত্যু উভয় হিসেবে শীর্ষে আছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে মোট ১৩ লাখ ৪৭ হাজার ৩০৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এখন পর্যন্ত সেখানে ৮০ হাজার ৩৭ জন মারা গেছেন। বিপরীতে ২ লাখ ৩৮ হাজার ৭৮ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। মৃতের সংখ্যায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাজ্য। সেখানে মোট ৩১ হাজার ৫৮৭ জনের প্রাণ কেড়েছে কোভিড-১৯। দেশটিতে মোট আক্রান্ত ২ লাখ ১৫ হাজার ২৬০ জন।
২ লাখ ৬২ হাজার ৭৮৩ জন আক্রান্ত নিয়ে আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে স্পেন। সেখানে মোট ২৬ হাজার ৪৭৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিপরীতে সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৭৩ হাজার ১৫৭ জন। ইতালিতে মোট ২ লাখ ১৮ হাজার ২৬৮ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ৩০ হাজার ৩৯৫ জনের। সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৩ হাজার ৩১ জন।
ফ্রান্সে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৭৬ হাজার ৫৬৮ জন। দেশটিতে ২৬ হাজার ৩১০ জন মারা গেছেন। বিপরীতে সুস্থ হয়েছেন ৫৬ হাজার ৩৮ জন। ব্রাজিলে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৫৬ হাজার ৬১ জন। এদের মধ্যে ১০ হাজার ৬৫৬ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। আর ৬১ হাজার ৬৮৫ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন।
আক্রান্তের হিসেবে সপ্তম অবস্থানে রয়েছে জার্মানি। দেশটিতে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৭১ হাজার ৩২৪ জন। তবে মৃতের হারে অনেক পিছিয়ে দেশটি। সেখানে মোট ৭ হাজার ৫৪৯ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। বিপরীতে সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৪৩ হাজার ৩০০ জন।
তবে গত কয়েক সপ্তাহে রাশিয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা হু হু করে বাড়ছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১ লাখ ৯৮ হাজার ৬৭৮ জন আক্রান্ত হয়েছেন। আর ১ হাজার ৮২৭ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। বিপরীতে ৩১ হাজার ৯১৬ জন সুস্থ হয়েছেন।
এছাড়া বেলজিয়ামে ৮ হাজার ৫৮১ জন, ইরানে ৬ হাজার ৫৮৯ জন, নেদারল্যান্ডসে ৫ হাজার ৪২২ জন, কানাডায় ৪ হাজার ৬৯৩ জন,  চীনে ৪ হাজার ৬৩৩ জন, তুরস্কে ৩ হাজার ৭৩৯ জন, সুইডেনে ৩ হাজার ২২০ জন, ভারতে ২ হাজার ১০১ জন, সুইজারল্যান্ডে ১ হাজার ৮৩০ জন, পেরুতে ১ হাজার ৮১৪ জন, ইকুয়েডরে ১ হাজার ৭১৭ জন, আয়ারল্যান্ডে ১ হাজার ৪৪৬ জন, পর্তুগালে ১ হাজার ১২৬ জনের প্রাণ কেড়েছে নভেল করোনাভাইরাস।
এছাড়াও প্রাণঘাতী কোভিড-১৯ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ইন্দোনেশিয়ায় ৯৫৯ জন, রোমানিয়ায় ৯৩৯ জন, পোল্যান্ডে ৭৮৫ জন, ফিলিপাইনে ৭০৪ জন, পাকিস্তানে ৬৩৬ জন, অস্ট্রিয়ায় ৬১৫ জন, জাপানে ৬০৭ জন, ডেনমার্কে ৫২৬ জন, মিসরে ৫১৪ জন, আলজেরিয়ায় ৪৯৪ জন, কলম্বিয়ায় ৪৪৫ জন, হাঙ্গেরিতে ৪০৫ জন, ডোমিনিকান রিপাবলিকে ৩৮৫ জন, ইউক্রেনে ৩৭৬ জন, চিলিতে ৩০৪ জন, আর্জেন্টিনায় ৩০০ জন, ইসরায়েলে ২৪৭ জন, চেক রিপাবলিকে ২৭৬ জন, দক্ষিণ কোরিয়ায় ২৫৬ জন, ফিনল্যান্ডে ২৫৬ জন, সৌদি আরবে ২৩৯ জন, নরওয়েতে ২১৯ জন, বাংলাদেশে ২১৪ জন, সার্বিয়ায় আরো ২১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।
গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহানে প্রথম শনাক্ত হয় নভেল করোনাভাইরাস। ধীরে ধীরে ভাইরাসটি চীনের গণ্ডি পেরিয়ে বিশ্বের ২১২টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে।
উদ্ভূত পরিস্থিতে গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে বৈশ্বিক মহামারী হিসেবে ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category