শনিবার, মে ৩০, ২০২০




কচুয়ায় পালগিরী গ্রামে করোনা আক্রান্তে ছেলে এবং বাবার মৃত্যূর পর মায়ের মৃত্যূ

মফিজুল ইসলাম বাবুলঃ চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার গোহট উত্তর ইউনিয়নের পালগিরী গ্রামের সরকার বাড়ির মজিবুর রহমান বাচ্ছু সরকারের মৃত্যূর দু’দিন না যাতেই তার স্ত্রী ফজিলেতুর নেছা (৭০) শনিবার (৩০মে) দুপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যূ বরন করেন। সকালে শ্বাষ কষ্ট হলে তাকেসহ পূর্বে মারা যাওয়া শাহদাতের স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়েকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেয়ার পথিমধ্যে ফজিলেতুর নেছা মার যায়। অন্যান্যরা চিকিৎসার জন্য ঢাকায় চলে গেলেও প্রতিমধ্য থেকে ফজিলেতুর নেছার লাশ বাড়িতে এনে স্বামী ও পুত্রের কবরের পাশেই তাকে দাফন করা হয়।

তার কবর খোঁড়াসহ দাফন কাজ সম্পুর্ণ করেন- কচুয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-দপ্তর সম্পাদক কবির হোসেন, স্থানীয় ইউপি প্যানেল চেয়ারম্যান মনির হোসেন, ইউপি সদস্য আলমগীর হোসেন, ছেরাজুল হক, কচুয়া থানার এ,এসআই মোঃ রায়হাত, উপজেলা ইসলামী ফাউন্ডেশনের ফিল্ড সুপার ভাইজার হাসান মজুমদার, মাওঃ মোফাজ্জল হেগাসেন, গোলাম সরোয়ার, আনোয়ার হোসেন, শাহজাহান, স্থানীয় আওয়ামী অঙ্গ-সংগঠনের নেতৃবৃন্দদের মধ্যে মনির মাস্টার, স্বপন মাস্টার, রায়হান সজিব অনিক, আবু বকর মেহেদী, আজাদ মুন্সি, জানে আলম সুমন, খোরশেদ আলম, ডাক্তার সবুজ, মাহফুজ ও মোশারফসহ আরো অনেকে। ফজিলেতুর নেছার মৃত দেহের নমুনা সংগ্রহ করেন- উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্যানেটারী ইন্সপেক্টর সতেন্দ্রনাথ মজুমদার।

উল্লেখ্য যে গত ১৯ মে করোনা সংক্রমনে একই পরিবারের শাহদাত হোসেন মানিক মারা যাবার পর ২৮ মে মারা যায় তার পিতা মজিবুর রহমান বাচ্ছু এবং এর দু’দিন পরেই আজ মারা যায় তার মা ফজিলেতুর নেছা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category