শনিবার, জানুয়ারি ১২, ২০১৯




ওরস মাহফিলের তাবারুক খেয়ে মতলবের আইসিডিআরবি হাসপাতালে ৩ শতাধিক ভর্তি

ষ্টাফ রিপোর্টারঃ  ফরিদগঞ্জ উপজেলার উভারামপুর পাটোয়ারী বাড়ীতে বার্ষিক ওরস ও দোয়ার মাহফিলের তাবারুক খেয়ে ৩ শতাধিক নারী, পুরুষ ও শিশু অসুস্থ হয়ে মতলব আইসিডিডিআর’বি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

শুক্রবার বিকেলে মাহফিলের তাবারুক খেয়ে এ ঘটনাটি ঘটে। ঐ দিবাগত রাত থেকেই অসুস্থ হয়ে নারী, পুরুষ ও শিশুসহ মতলব আন্তজার্তিক উদরাময় গবেষনা কেন্দ্রে (মতলব কলেরা হাসপাতাল) রোগী আসতে থাকে। শনিবার ৩ শতাধিক রোগী আইসিডিডিআর’বি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে বলে হাসপাতাল সূত্র জানায়।

অসুস্থদের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ৯ জানুয়ারী ফরিদগঞ্জ উপজেলার উভারামপুর পাটোয়ারী বাড়ীর বার্ষিক ঔরস ও দোয়ার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। ঐ ওরষ মাহফিলে শুক্রবার তেহারী (ডাল, গরুর মাংস, মসলা) জাতীয় খাবার খেয়ে কয়েক গ্রামের তিন সহ¯্রাধিক নারী, পুরুষ ও শিশু অসুস্থ হয়ে পড়ে। ৪/৫ ঘন্টা পরে অনেকেরই বমি ও পাতলা পায়খানা হতে শুরু করে। এদের মধ্যে বেশীরভাগ নারী, পুরুষ ও শিশু প্রাথমিকভাবে হাসপাতালে ও পাশ্ববর্তী এলাকায় চিকিৎসা সেবা নিয়েছে। তন্মধ্যে ৩ শতাধিক নারী, পুরুষ ও শিশু মতলব আন্তজার্তিক উদরাময় গবেষনা কেন্দ্রে (মতলব কলেরা হাসপাতাল) চিকিৎসার জন্য ভর্তি হয়েছেন। সাফায়েত হোসেন (০২), সুরুঙ্গচাল গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী সাবিনা বেগম, চৌরাঙ্গা গ্রামের আঃ হাইয়ের মেয়ে সুমাইয়া (১৬), শাহরাস্তির ইদ্রিছ মিয়ার ছেলে মোঃ হোসেন (৩৬), নাটেহরা গ্রামের মৃত আঃ হকের ছেলে আঃ সামাদ, একই গ্রামের আঃ সামাদের স্ত্রী মমতাজ (৩৬) জানায়, তাবারক খাওয়ার ৪ঘন্টা পরেই আমাদের বমি ও পাতলা পায়খানা শুরু হয়। পর্যায়ক্রমে অসুস্থের সংখ্যা বেড়েই চলছে।

প্রত্যক্ষদর্শী পাশ্ববর্তী উবরামপুর পার্শ্ববর্তী হাজীগঞ্জ উপজেলার শমেশপুর গ্রামের তানজিমুল ইসলাম মামুন জানান, গত শুক্রবার দুপুরের পরে ঐ ঔরষ মাহফিলের তাবারুক খেয়ে আমাদের গ্রামের বেশ কিছু লোককে হাসাপাতাল ও স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা সেবা নিতে দেখা গেছে।

আইসিডিডিআরবি’তে কর্মরত ডা. চন্দ্র শেখর জানান, খাদ্যে বিষক্রিয়ার কারণে মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়েছে। তাদেরকে এন্ট্রিবায়োটিকসহ স্যালাইন দিয়ে চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category